1. admin@sabujbanglanews.com : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. uttam.birganj14@gmail.com : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
বীরগঞ্জে মহাসড়কের পাশে ঝুঁকিপূর্ণ একটি মরা গাছ নিয়ে জনসাধারণের ভোগান্তি - সবুজ বাংলা নিউজ
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:২৪ অপরাহ্ন

বীরগঞ্জে মহাসড়কের পাশে ঝুঁকিপূর্ণ একটি মরা গাছ নিয়ে জনসাধারণের ভোগান্তি

বার্ত ডেক্স
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০২৪

বিকাশ ঘোষ, বীরগঞ্জ(দিনাজপুর)প্রতিনিধি:

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌরশহরের ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়কের হাটখোলার তিন মোড়ের এই মৃত শিমুল গাছটি ভেঙে পড়ে ঘটাতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা।পৌরশহরের কাহারোল মোড়ে হোটেল বর্ণালি (আবাসিক) এর সামনে একটি মরা শিমুল গাছ এখন মরণ ফাঁদ পথচারীসহ এলাকার জনসাধারণের। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা এই গাছ ভেঙে যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে- এমন আতঙ্ক নিয়ে চলাচল করছে ওই এলাকার পথচারীরা। প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোটোখাটো দুর্ঘটনাও।শহরের জনগুরুত্বপূর্ণ ও পার্শ্ববর্তী কাহারোল উপজেলায় যাওয়ার সড়কের তিন রাস্তার মোড়ে রয়েছে এই শিমুল গাছটি। মরা শিমুল গাছটি কাটার কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় ঝুঁকিপূর্ণ ও মরণ ফাঁদ হয়ে জনগণের গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। অল্প বাতাসেই ভেঙে পড়ছে সেই গাছের ডালপালা। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোটোখাটো দুর্ঘটনা। এসব ঝুঁকি নিয়েই রাস্তায় চলাচল করছে পথচারীরা।স্থানীয়রা ঝুঁকিপূর্ণ গাছটি কেটে নেয়ার দাবি জানালেও এ বিষয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগ বা বনবিভাগ এবং জেলা পরিষদের নজর নেই বললেই চলে।সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বীরগঞ্জ পাইলট সরকারি উচ্চ, ইব্রাহিম মেমোরিয়াল শিক্ষা নিকেতন,উপজেলা পরিষদের পাশে কাহারোল মোড়ে ফেরদৌস ও বাবুলের চায়ের দোকানের মাঝখানে কয়েকমাস ধরেই জেলা পরিষদের মরা শিমুল গাছটি দাঁড়িয়ে রয়েছে। গাছটিকে ঘিরে চারপাশে কয়েকটি দোকান রয়েছে, কখন ভেঙে পরে এমন ঝুঁকি নিয়ে তারা ব্যবসা করে যাচ্ছে। এতে যে কোন মুহূর্তে দুর্ঘটনা ঘটার শঙ্কা রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। স্থানীয়রা আরও বলেন, গাছটি মরে যাওয়ায় ওই রাস্তা দিয়ে দুই স্কুল ও হাটুয়া মানুষ ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। গাছটি কাটার জন্য জেলা প্রশাসক কর্তৃপক্ষকে বার বার বলা হলেও কোনো লাভ হয়নি।হাটখোলার জামিল জানান, প্রতিদিন তাকে এই রাস্তায় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়। কয়েকদিন আগের ঝড়ে একটি গাছের ডাল ভেঙে পড়ায় অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন তিনি। বর্তমানে চৈত্র -বৈশাখ মাস মৌসুমে বড় ধরনের ঝড় হলে গাছটি জনগণের শরীরের উপর পড়তে পারে। এজন্য অনেকই আতঙ্কে রয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফজলে এলাহী বলেন, গাছটি মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থার মধ্যে রয়েছে। ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলে এটি দ্রুত অপসরণের ব্যবস্থা নেয়া হবে।জেলা পরিষদের সদস্য রোকনুজ্জামান বিপ্লব জানান,গাছটি কাঁটার ব্যাপারে জেলা পরিষদে জানানো হয়েছে। মরা শিমুল গাছসহ জেলা পরিষদের বেশকিছু মরা গাছ খুব শীঘ্রই অপসারণর করা হবে।

আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।