1. admin@sabujbanglanews.com : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. uttam.birganj14@gmail.com : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
দিনাজপুরে বোরো ধানের বাম্পার ফলন - সবুজ বাংলা নিউজ
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০১ অপরাহ্ন

দিনাজপুরে বোরো ধানের বাম্পার ফলন

বার্ত ডেক্স
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩ মে, ২০২৩

জলিল নিজস্ব প্রতিবেদকঃ-

জেলার ১৩ টি উপজেলায় মোট ১ লাখ ৭৩ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষ হয়েছে
দিনাজপুরে বোরো ধানের বাম্পার ফলন, কাটা-মাড়াই শুরু দক্ষিণা বাতাসে দিনাজপুরের বোরো ক্ষেতে দুলছে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন। শুরু হয়েছে বোরো ধানের কাটা-মাড়াই। ভাল ফলন ও দাম ভাল থাকায় খুশি ধানচাষিরা।
চলতি বোরো মৌসুমে এবার জেলায় ১ লাখ ৭৩ হাজার হেক্টর জমিতে এই ধান চাষ হয়েছে, জানিয়েছেন কৃষি অধিদপ্তর। জেলার বিভিন্ন উপজেলার বোরো ক্ষেত ঘুরে দেখা যায়, মাঠে মাঠে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে সোনালি রঙের পাকা ধান। দেখে মনে হচ্ছে যেন মাঠে সোনা ছিটিয়ে পড়ে আছে। মনের সুখে কাটছে এসব ধান। কাটা-মাড়াই খরচ শ্রমিকরা নিচ্ছে বিঘাপ্রতি ৪০০০ থেকে ৪২০০ টাকা। ধানের দাম ভাল আছে, সরকারি ভাবে ধান ক্রয় শুরু হলে আর দাম বেশি পাবে, এমনটিই আশা কৃষকের।
হাকিমপুর উপজেলার বোয়ালদাড় গ্রামের বোরোচাষি মহাসিন আলী বলেন, এবার আমি ৭ বিঘা জমিতে ইরি ধান চাষ করেছি। ফলন আল্লাহ দিলে অনেক ভাল হয়েছে। কাটা-মাড়াই শুরু করেছি। বিঘাপ্রতি ২৩ থেকে ২৪ মণ ধান ঘরে তুলছি।বিরামপুর উপজেলার কেটরা গ্রামের কৃষক বাদল মিয়া বলেন, ১৮ বিঘা জমিতে বোরো ধান চাষ করেছি। কয়েকটা জমির ধান পাক ধরেছে। এসব পাকা ধান কাটতে লোক লাগিয়েছি। বাকি জমির ধান পাকতে আর ৮ থেকে ১০ দিন সময় লাগবে। আবহাওয়া ভাল থাকলে আশা করছি ফলনও ভাল পাবো।ধানকাটা শ্রমিক জহুরুল ইসলাম বলেন, আমরা ১৬ জনের একটি দল, এক সাথে ধান কাটা-মাড়াই করছি। শুধু ধান কেটে নিলে আমরা বিঘাপ্রতি ৩০০০ থেকে ৩২০০ টাকা নিচ্ছি। আর যদি কাটা সহ মাড়াই করে নিলে ৪০০০ থেকে ৪২০০ টাকা নিচ্ছি। আমরা দিনে প্রায় ৪ থেকে ৫ বিঘা জমির ধান কাটা-মাড়াই করছি।
হাকিমপুর উপজেলার কৃষি অফিসার আরজেনা বেগম বলেন, চলতি বোরো মৌসুমে এই উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রা ধরাছিলো ৭ হাজার ১২০ হেক্টর জমি। সেখানে চাষ হয়েছে ৭ হাজার ৫৯৫ হেক্টর জমি। মাঠে বোরো ধানের ফলন এখন পর্যন্ত ভাল আছে। বিভিন্ন চিকোন জাতের ধান বিঘাপ্রতি ২৫ থেকে ২৬ মণ হচ্ছে। এছাড়াও উন্নত জাতের বীজ থেকে প্রতি শতকে ১ মণ করে কৃষক ধান কাটা-মাড়াই করছেন। আশা করছি আবহাওয়া ভাল থাকলে কৃষক তাদের কাঙ্ক্ষিত ফসল ঘরে তুলতে পারবে। বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের মোঃ জয়নাল আবেদীন বলেন এবার ৪ বিঘা জমিতে আঠাশ জাতের বোরে ধান চাষ করেছি ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধান কাটা শুরু হয়েছে আবহাওয়া ভালো থাকলে ধান ঘরে তুলতে কোন সমস্যা হবে না। তিনি আরো বলেন বীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শরিফুল ইসলাম যেভাবে কৃষকদের বিভিন্ন ধরনের রোগ বালাই থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য পরার্মশ দিয়ে যাচ্ছেন এবং তার পরার্মশ অনুযায়ী কৃষকরা কাজে লাগিয়ে যাচ্ছেন। সেই কারনে এবার বোরো ধান ফলন বৃদ্ধি পেয়েছে। এব্যাপারে বীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শরিফুল ইসলামের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন এবার ১৪৮৪০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়েছে। বোরো ধানে কোন ধরনের ছত্রাক রোগ বালাই যেন না ধরতে পারে সে বিষয়ে কৃষকদের মাঝে পরার্মশ অব্যাহত রয়েছে।
দিনাজপুর জেলা কৃষি অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ নুরুজ্জামান বলেন, জেলার ১৩ টি উপজেলায় মোট ১ লাখ ৭৩ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষ হয়েছে। এই জেলা ধানের জন্য বিখ্যাত, পাশাপাশি অন্যান্য ফসলও অনেক ভাল হয়ে থাকে। আমরা কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করে আসছি। ধানের বর্তমান বাজার দর ভাল আছি। আশা করছি কৃষক লাভবান হবে।

আরও সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।