1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বীরগঞ্জে শারদীয় দূর্গা পুজা উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মটর সাইকেল শো ডাউন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সবচেয়ে বড় উদাহরণ বাংলাদেশ’ -এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল বীরগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু বীরগঞ্জে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত ধর্মীয় সম্প্রীতির উদাহরণ হিসেবে বাংলাদেশের নাম বিশ্বে আলোচিত’ -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি কুড়িগ্রামে চরে গিয়ে করোনার টিকা দিচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে জাতীয় শ্রমিকলীগ এর ৫২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত। কাহারোলে নগদ অর্থ বিতরণ কুড়িগ্রামে প্রেমিক কর্তৃক ছাত্রী হত্যার বিচারের দাবিতে মানব বন্ধন কুড়িগ্রামের সীমান্তঘেষা বারো মাসই নদীর ভাঙ্গন রোধ বন্ধকল্পে মানববন্ধন বীরগঞ্জে দুর্গাপূজার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন আবারো ঘোড়াঘাট ৪ নং ওয়ার্ডের এলাকাবাসী কমিশনার হিসেবে দেখতে চাই সাহেব আলীকে কাহারোলে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীদের নিয়ে ব্রিফিং অনুষ্ঠান কাহারোলে আগাম জাতের আমন ধানের বাম্পার ফলন দাম পেয়ে কৃষকের মুখে হাঁসির ঝিলিক

গ্রাম পুলিশের চাকরি সরকারী করণের হাইকোর্টে নির্দেশ

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৬১ জন দেখেছেন

মিজানুর রহমান( ধামরাই) ঢাকা প্রতিনিধিঃ

গ্রাম পুলিশের চাকরি সরকারি করণের হাইকোর্ট নির্দেশ দেওয়া সে সঙ্গে চতুর্থ শ্রেণির স্কেলের সমমর্যাদায় তাদের বেতন দেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় সরকার মন্ত্রালয়কে।এ রায়ের ফলে দেশের ৪৭ হাজার গ্রাম পুলিশ বাড়তি সুযোগ-সুবিধা পাবেন বলে আজ সোমবার (২৩ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা এবং তদন্ত ওসি কামাল হোসেন কে ফুলের শুভেচ্ছা দেওয়া হয়।উল্লেখ্য থাকে যে গ্রাম পুলিশের কুশুরা ইউনিয়ন পরিষদের দফাদার মোঃ লাল মিয়া গ্রাম পুলিশের পক্ষে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করে। সেই রিট বিচারপতি আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিল সেটা আমলে নিয়ে রিট শুনানী শেষে গত ১৫/১২/১৯ তারিখে রোজ রবিবার এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে বিচারপতি আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।এই ব্যাপারে ধামরাই উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের দফাদারদের সভাপতি মোঃ লাল মিয়া বলেন, আমাদের দেশের বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদে দফাদার ও মহলদার হিসেবে কর্মরত গ্রাম পুলিশের সংখ্যা প্রায় ৪৬ হাজার। এদের মধ্যে দফাদারদের মাসিক বেতন ৩ হাজার ৪০০ টাকা। আর মহলদারদের বেতন ৩০০০ টাকা। গ্রাম পুলিশের চাকরি

সরকারের রাজস্ব খাতে অন্তরর্ভুক্ত না হওয়ায় এই বেতনের অর্ধেক দেয় ইউনিয়ন পরিষদ আর সরকারের কোষাগার থেকে আসে বাকিটা।তিনি আর বলেন
ব্রিটিশ আমল থেকে এ বাহিনী বিভিন্ন আইনের অধীনে কাজ করে আসছে। সর্বশেষ স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ সালের অন্তরর্ভূক্ত করা হয়। এ আইনের অধীনে ২০১৫ সালে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) গ্রাম পুলিশ বাহিনীর গঠন, প্রশিক্ষণ, শৃংখলা ও চাকুরির শর্তাবলী সম্পর্কিত বিধিমালা তৈরি করা হয়।

কিন্তু এ বিধিতে তাদের কোনো শ্রেণি নির্ধারণ করা হয়নি। এদিকে ২০০৮ সালের স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় গ্রাম পুলিশদের চতুর্থ শ্রেণির স্কেল নির্ধারণে অর্থ বিভাগকে চিঠি দেয়। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় কোনো সিদ্ধান্ত না নেওয়ায় পরে আমি বাদী হয়ে হাইকোর্টে রিট করি।

সেই রিটে চাকরি রাজস্ব খাতে অন্তরর্ভুক্তি, সরকারি বেতন কাঠামোর চতুর্থ শ্রেণির সমমর্যাদা, মানসম্মত পোশাক, অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মতো রেশন চালু ও ঝুঁকি ভাতা প্রদান, প্রত্যেক বিভাগে একটি করে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন এবং গ্রাম পুলিশের সন্তানের জন্য সরকারি চাকরিতে কোটা সংরক্ষণের দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচিতে আন্দোলনের পর গ্রাম পুলিশরা প্রতিকার পেতে উচ্চ আদালতে আসি।

পরে ধামরাই ইপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সামিউল হক গ্রাম পুলিশদের ধন্যবাদ জানিয়ে শুশৃংখল ভাবে নিষ্ঠার সাথে প্রত্যেককে কাজ করতে বলেন।

এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Sabuj Bangla News Team