1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বীরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার আয়োজনে শেখ রাসেলের শুভ জন্মদিন উপলক্ষের দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত কাহারোলে মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত দিনাজপুরে শিক্ষা বোর্ডে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৭ তম জন্মবার্ষিকী পালিত দিনাজপুরে শিক্ষা বোর্ডে ১ম দিনে ৬ জনের মনোনয়নপত্র ক্রয় শেখ রাসেল দিবসে পদক্ষেপ মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রর নানান কর্মসূচী বিরামপুরে উপজেলা প্রশাসন -পৌর প্রশাসন শেখ রাসেল দিবস পালন করে বীরগঞ্জে গরু চুরি নিয়ে আতংকিত পৌরবাসী পূজা মন্ডপে হামলাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বীরগঞ্জে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন বীরগঞ্জে তন্ত্রমন্ত্র দিয়ে সাপ টানার প্রতিযোগিতা বীরগঞ্জ পৌরসভার আয়োজনে “শেখ রাসেল দিবস” উপলক্ষে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বেঁচে থাকলে রাজনৈতিক ভাবে শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত অগ্রদূত হত শেখ রাসেল -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি বীরগঞ্জে উপজেলায় চৌধুরী হাট স্কুল মাঠে, ঐতিহ্যবাহী ‘পাতা খেলা’ দেখতে উপচেপড়া ভিড় বীরগঞ্জে শারদীয় দূর্গা পুজা উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মটর সাইকেল শো ডাউন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সবচেয়ে বড় উদাহরণ বাংলাদেশ’ -এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল বীরগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

নৃশংসতার আরেক নাম ১৪ই ডিসেম্বর

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৯১ জন দেখেছেন

এম নজরুল ইসলাম,তালা,সাতক্ষীরাঃ

১৯৭১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর, দখলদার পাকিস্তানি বাহিনী এবং রাজাকার আল-বদর, আল-শামস বাহিনী মিলিতভাবে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক এবং রাজনৈতিক আন্দোলনে প্রধান শক্তি শ্রেষ্ঠ বুদ্ধিজীবীদেরকে হত্যা করে। এই হত্যাকাণ্ডের ঠিক দুই দিন পর ১৬ ডিসেম্বর জেনারেল নিয়াজির নেতৃত্বাধীন বর্বর পাকিস্তানী বাহিনী আত্মসমর্পণ করে এবং বিজয়ের মধ্য দিয়ে স্বাধীন দেশ হিসাবে বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটে।

বাঙ্গালীর রাজনৈতিক জাগরণে বুদ্ধিজীবীদের ভূমিকা ছিল প্রধান। বাঙালি জাতিকে যে কোন অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন এই বুদ্ধিজীবীগণ। এই কারণের তারা পাকিস্তানী বাহিনীর নয় মাসব্যাপী গণহত্যার অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।
২৫ শে মার্চের কালোরাত্রি থেকেই বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড শুরু হয়। স্বাধীনতা যুদ্ধের পুরো সময়জুড়ে সুপরিকল্পিতভাবে একের পর এক বুদ্ধিজীবী হত্যা চলতে থাকে। পাকিস্তানীঘাতকদের আত্মসমর্পনের ঠিক দুই দিন আগে ১৪ ডিসেম্বরের বাঙ্গালি জাতি ঘটনের প্রক্রিয়ায় মেধা শূন্যতা তৈরি করার উদ্দেশ্যে শিক্ষাবিদ, ডাক্তার, লেখক, শিল্পী, চিন্তাবিদ, অর্থনীতিবিদ সহ বিভিন্ন পেশার বুদ্ধিজীবীদেরকে বীভৎস- পাশবিকভাবে হত্যা করে পাকিস্তানী বাহিনী ও তাদের দোশররা হত্যা করে।

  • 12
    Shares
এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Sabuj Bangla News Team