কুড়িগ্রামে তহশিলদারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় ফসল কর্তন কুড়িগ্রামে তহশিলদারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় ফসল কর্তন – সবুজ বাংলা নিউজ
  1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বীরগঞ্জের পল্লীতে আদালতের নির্দেশ অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ কুড়িগ্রামে নানা আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র ৭৫ তম শুভ জন্মদিন পালিত সাতোর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান বাবু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বীরগঞ্জে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা বীরগঞ্জের মরিচায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে গণটিকার কার্যক্রম উদ্বোধন বীরগঞ্জে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপলক্ষে বীরগঞ্জে ছাত্রলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালন নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিরামপুর পৌরসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন পালিত কাহারোলে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত মানুষের জীবনমান উন্নত করাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য -হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষে বীরগঞ্জে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা শেখ হাসিনার উদ্দোগ,ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, এই ¯স্লোগান কে সামনে রেখে- দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে বিদ্যুৎ স্বাস্চয়ের লক্ষ্যে,সৌর বিদ্যুৎ চালিত সেচ পাম্প ব্যবহার ও সংযোগ গ্রাহনে জনসাধারনকে অবহিত করন সভা হয়েছে বিরামপুরে পৌর এলাকায় কার্পেটিং রাস্তার কাজের উদ্বোধন করলেন-পৌর মেয়র আককাস আলী দিনাজপুরের দৈনিক যুগের আলোর ২৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

কুড়িগ্রামে তহশিলদারের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয়ায় ফসল কর্তন

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: শনিবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২১
  • ৩৭ জন দেখেছেন

 

রুহুল আমিন রুকু, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার মদদে প্রকাশ্যে সাংবাদিক আনিছুর রহমানের পরিবারের ভোগ দখলীয় ও রেকর্ড ভুক্ত জমির ফসল কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (৩০ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের যাদুরচর পূর্বপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। এরআগে বৃহস্পতিবার আবুল কালাম বাদী হয়ে রৌমারী উপজেলার সদর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সাহাদৎ হোসেনসহ ৮জনের নাম দিয়ে রৌমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
রৌমারী থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) আলমাছ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযোগ পেয়ে শুক্রবার রাতে ওই ফসলি জমিটি সরেজমিন পরিদর্শন করে মিমাংসার লক্ষ্যে দুই পক্ষকেই কাগজপত্র নিয়ে রোববার সকাল ১০টায় থানায় হাজির হতে বলা হয়েছিল। কিন্তু বিবাদীরা তা না মেনে শনিবার সকালে ক্ষেতের সব সরিষা তুলে নিয়ে গেছে।
সাংবাদিক আনিসুর রহমান জানান, তার চাচা আবুল কালাম পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ১৫শতক জমি দীর্ঘ ৫৩বছর ১৯৬৮সাল থেকে খাজনা দিয়ে ভোগদখল করে আসছেন। যার আরএস খতিয়ান নং ২২৪৯, হোল্ডিং ২২৪৯,দাগ নং ২২১৯। যাদুরচর পূর্বপাড়া এলাকার মৃত কেরামত আলীর ছেলে আবুল ফজল তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে জোর পূর্বক ক্ষেতের সব সরিষা তুলে নিয়ে যাবে বলে আগে থেকেই হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার রাতেই রৌমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। থানায় লিখিত অভিযোগ দেবার পরও শনিবার সকালে আবুল ফজলের নেতৃত্বে ৪০/৫০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত এলাকায় ভয়ভীতি স্বতস্ত্র অবস্থায় সৃষ্টি করে আমাদের জমির সরিষা তুলে নিয়ে যায়।
জমির মালিক আবুল কালাম অভিযোগ করে বলেন, তার এ রেকর্ডিয় ও ভোগদখলীয় জমিটি অবৈধ ভাবে আবুল ফজল গংদেরকে দখলে নিতে, বিভিন্ন ভাবে উস্কানী-মদদ দিয়ে যাচ্ছেন রৌমারী সদর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা সাহাদৎ হোসেন। তিনি আরো বলেন,আবুল কালাম গংদের রেকর্ডভুক্ত ও ভোগদখলীয় ১৫শতক জমি যাদুরচর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সাহাদৎ হোসেন মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ২০১৭ সালে একই এলাকার আবুল ফজল গং’র নামে নামজারি করে দেন। পরবর্তীতে আমরা মিস কেস দায়ের করলে ২০২০ সালে আবুল ফজল গং’দের নামের নামজারি মামলাটি বাতিল করা হয়। এরপর তহশিলদার সাহাদৎ হোসেন রৌমারী সদর ইউনিয়নে বদলি হোন। একই বছরে যাদুরচর ইউনিয়ন ভূমি অফিসে অতিরিক্ত দায়িত্ব পান ওই তহশিলদার। পুনরায় টাকার নিয়ে এই জমিটি পুনরায় ডিসেম্বর মাসে আবুল ফজল গং’র নামে নামজারি করে দেন তহশিলদার।
স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল ওয়াহেদ (৬৫) জানান, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সাহাদৎ হোসেন সরেজমিন মাঠ পরিদর্শন,জরিপ না করে অফিসে বসে মনগড়া তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি ও প্রস্তাব দিয়ে অবৈধ পন্থায় নামজারি করে দেবার কারণে জমি নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়েছে। ওই তহশিলদার থাকাকালীন সময়ে অনেক গরিব মানুষের জমিজমা সংক্রান্ত জটিলতা তৈরি করে গেছেন।
অভিযুক্ত রৌমারী সদর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী সাহাদৎ হোসেন উস্কানী দেবার কথা অস্বীকার করে বলেন,আবুল ফজল গং যা করছেন তা আইন মেনে করছেন। জমি তাদের দখলে থাকায় সরিষা তুলে নিয়ে গেছে। এছাড়াও বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল ইমরান ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। সঠিক তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে।
রৌমারী থানার ওসি মোন্তাছের বিল্লাহ জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। জমি থেকে কেটে নেওয়া সরিষা জব্দ করে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। #

  • 3
    Shares
এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Sabuj Bangla News Team