ফটিকছড়িতে খানাখন্দে ভরা সড়ক, জনদুর্ভোগ চরমে – সবুজ বাংলা নিউজ
রবিবার ৬ ডিসেম্বর ২০২০, অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ

ফটিকছড়িতে খানাখন্দে ভরা সড়ক, জনদুর্ভোগ চরমে

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম: দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নের খাজা গাউসিয়া মার্কেট-দক্ষিণ সুন্দরপুর সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কটিতে চরম ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে ফটিকছড়ি পৌরসভা ও সুন্দরপুর ইউনিয়নের প্রায় দশ হাজার বাসিন্দাদেরকে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে এলাকাবাসী জানালেন, প্রতিবারই নির্বাচন পূর্ববর্তী সময়ে জনপ্রতিনিধিরা সড়কটি পুনঃসংস্কারের আশ্বাস দিলেও বাস্তবে কিছুই হয়না।

জানা গেছে, ফটিকছড়ি পৌরসভার খাজা গাউসিয়া মার্কেট হতে শুরু হয়ে সড়কটি দক্ষিণ সুন্দরপুর একখুলিয়া গিয়ে শেষ হয়েছে। এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বাজার, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা রয়েছে। কিন্তু বেহাল অবস্থার কারণে এ সড়ক দিয়ে হেঁটে চলাও দায়। বিকল্প কোন সড়ক না থাকায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এ সড়কে যাতায়াতকারী অসংখ্য পথচারীকে। জন গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়কটি অসংখ্য খানা-খন্দে ভরপুর হয়েছে। এতে করে এ ইউনিয়নের বিপুল জনগোষ্ঠীর যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এই সড়কের কয়েকজন গাড়িচালক জানান, শুষ্ক মৌসুমে কিছুটা ঠিক থাকলেও বর্ষাকালে কাদা ও পানিতে নিমজ্জিত থাকে সড়কটির বিপুল অংশ। খানাখন্দে ভরা সড়কটিতে রিক্সা ও ভ্যানগাড়ি উল্টে যায়। ফলে অনেক দুর্ভোগে পড়তে হয়।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. জানে আলম মেম্বার জানান, সড়কটি অর্ধেক অংশ পড়েছে পৌরসভায় বাকি অর্ধেক সুন্দরপুর ইউনিয়নে। দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি মেরামত করা হয়নি।

সুন্দরপুরের বাসিন্দা সহকারী শিক্ষক আমান উল্লাহ আমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সড়কটির কাজ না হওয়াতে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী ও অসুস্থ রোগীদেরকে অনেক কষ্টে চলাচল করতে হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সড়কটি মেরামতের জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

সুন্দরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহনেওয়াজ বলেন, সড়কটি অর্ধেক পৌরসভায় পড়েছে বাকি অর্ধেক সুন্দরপুর ইউনিয়নে পড়েছে। আমার ইউনিয়নের অংশটি দুই মাস আগেও রিফাইয়ারিং করা হয়েছে।

ফটিকছড়ি উপজেলা প্রকৌশলী এস এম হেদায়ত জানান, সড়কটি টেন্ডার হয়েছে, শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

  • 8
    Shares

আরও সংবাদ

বীরগঞ্জে জমে উঠেছে কাপড়ের বাজার

বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : বরাবরই শীত আসার আগের ছয় মাস ব্যস্ত থাকেন শীতের পোশাক তৈরির …