দুই হালী মামলা ও অভিযোগের শেষ নেই ইফতেখার আহমেদ বাবুর নামে – সবুজ বাংলা নিউজ
বুধবার ২০ জানুয়ারি ২০২১, পৌষ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ

দুই হালী মামলা ও অভিযোগের শেষ নেই ইফতেখার আহমেদ বাবুর নামে

ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর): দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার কথিত সাংবাদিক ইফতেখার আহম্মেদ খাঁন বাবুকে গ্রেপ্তারের পর মুখ খুলতে শুরু করেছে ভুক্তভোগীরা। থানায় প্রতিদিন তার বিরুদ্ধে নানা ধরণের অভিযোগ নিয়ে আসছে ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা।

গেলো বুধবার রাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় বাবুকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। পরে তার বাড়ির সামনে থেকে বাবুর ব্যবহারিত একটি চোরাই প্রাইভেট কার জব্দ করে অপর আরেকটি মামলা দায়ের করে পুলিশ।

দুটি মামলায় গত বৃহস্পতিবার তাকে দিনাজপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করার পর তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছে ঘোড়াঘাট সহ আশপাশের একাধিক উপজেলার অসংখ্য ভুক্তভোগী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান।

জেল হাজতে থাকা ইফতেখার আহম্মেদ খাঁন বাবু নিজেকে সাংবাদিক নেতা ও যুবলীগ নেতা সহ সাংসদ শিবলী সাদিকের ঘনিষ্ঠ আস্থাভাজন প্রতিনিধি এবং ‘আমার এমপি ডট কম’ সংস্থার দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এর অ্যাম্বাসেডর হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছিল।

এমপি শিবলী সাদিক এবং আওয়ামী লীগের বিভিন্ন প্রোগ্রাম ও কর্মসূচিতে সে কৌশলে এমপি ও নেতাদের সাথে ছবি তুলে তা ফেসবুকে প্রচার করত। যার ফলে প্রতিনিয়ত অপকর্ম করে গেলেও, এমপির আস্থাভাজন ভেবে মুখ খুলতো না ভুক্তভোগী ব্যক্তিরা।

এই কারণে সে দিনের পর দিন সাধারণ মানুষ ও বিভিন্ন ব্যবসায়ীদেরকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ ও চাঁদাবাজি সহ বিভিন্ন কুকর্ম করত।

শুক্রবার রাতে পৃথক দুজন ব্যক্তি বাদী হয়ে বাবুর বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের দুটি মামলা দায়ের করেছে।

মামলা দুটির এজাহার অনুযায়ী দেখা যায়, ঘোড়াঘাট উপজেলার বালু ব্যবসায়ী শের আলী ও জাহাঙ্গীর আলমের কাছে থেকে বাবু কয়েক লাখ টাকার বালু ক্রয় করে। এর মাঝে নাম মাত্র কয়েক হাজার টাকা দিয়ে বাকি টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানায় বাবু।

পাওনা টাকা চাইতে গেলে ওই দুই ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি ধামকি প্রদান করে। অপরদিকে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে তাদের প্রাণনাশ করা হবে, এ ধরণের হুমকি প্রদান করে বাবু। ওই ব্যবসায়ীরা ভয়ে এতদিন মুখ খোলেনি।

নতুন দুটি মামলার বিষয় নিশ্চিত করে ঘোড়াঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিম উদ্দিন বলেন, তার বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত মোট ৮টি মামলা রজু হয়েছে। আরো ৪টি অভিযোগ ভূক্তভোগী কয়েকজন ব্যক্তি থানায় জমা দিয়ে গিয়েছে। তার ভেতর ব্যবসার কথা বলে ও বিভিন্ন মালামাল ক্রয় করে মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ বেশি।

অভিযোগ গুলোর সত্যতা আমরা ক্ষতিয়ে দেখছি। বিগত সময়ে বাবু তার ব্যক্তিগত ব্যবহারিত ফেসবুক আইডি থেকে বিভিন্ন ব্যক্তিকে হুমকি ধামকি দিয়ে ও হেয় প্রতিপন্ন করে মানহানিকর স্ট্যাটাস দিয়েছে। তারাও এখন প্রমান সহ থানায় অভিযোগ দিচ্ছে।

  • 154
    Shares

আরও সংবাদ

বীরগঞ্জে পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সভা- সমাবেশ

 মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে পাল্টাপাল্টি মানবনবন্ধন ও বিক্ষোভ সভা- সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। …