দিনাজপুরে আমন ধানের পোকা ও রোগবালাই দমনে কৃষি অফিসের বিশেষ উদ্যোগ দিনাজপুরে আমন ধানের পোকা ও রোগবালাই দমনে কৃষি অফিসের বিশেষ উদ্যোগ – সবুজ বাংলা নিউজ
  1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০২:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু শোকাবহ আগষ্টের প্রথম প্রহরে জেলা ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জ্বলন অবৈধ ভাবে ভারত থেকে ফেরার পথে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তে ৭ বাংলাদশী আটক বীরগঞ্জে সামান্য বৃষ্টিতে ব্রীজ ভেঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ ,দুর্ভোগে এলাকার ৫০ হাজার মানুষ বীরগঞ্জে নব- গঠিত ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্বলন বীরগঞ্জে জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্ততিমুলক সভা অনুষ্ঠিত শোকাবহ আগস্টের প্রথম সন্ধায় বীরগঞ্জ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা শোকাবহ আগষ্টের প্রথম প্রহরে কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জ্বলন চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড এবং আফগানিস্তান ৫৮ বছরে পা রাখল গৌরীপুর সরকারি কলেজ বীরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনঃ সভাপতি অন্তু ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম মুর্শিদ ধর্ম নিরপেক্ষতাই বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগের পরিচয় -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি উলিপুরে যৌন নিপীড়নের চেষ্টার মামলায় অভিযুক্ত মুনসুর আলী গ্রেপ্তার গার্মেন্টস খোলার খবরে যাত্রীদের ঢল বীরগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত -১, ইউপি সদস্য সহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

দিনাজপুরে আমন ধানের পোকা ও রোগবালাই দমনে কৃষি অফিসের বিশেষ উদ্যোগ

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ১১ জন দেখেছেন

 

দয়ারাম রায় ,ষ্টাফরিপোটারঃ

দিনাজপুর সদর উপজেলায় এ বছর ২৭১৩৬ হেক্টর জমিতে আমন ধানের আবাদ করা হচ্ছে। অতি সম্প্রতি অতিবৃষ্টির কারণে কৃষককূল অনেক ক্ষেত্রে ফসলের সময়মত পরিচর্যা করতে পারেন নাই। ফসলের অবস্থা তবুও এ বছর ভাল রয়েছে। কিন্তু বর্তমানে বিরাজিত আবহাওয়ায় বিছিন্ন ও বিক্ষিপ্ত ভাবে ধানের ক্ষেতে বাদামী গাছফড়িং (কারেন্ট পোকা) ও ব্লাষ্ট আক্রমনের অনুকূল পরিবেশ দেখা দিয়েছে। তাই আগাম ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য দিনাজপুর সদরের কৃষি বিভাগের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন আমন ফসল রক্ষায় রোগ ও পোকা মাকড় দমনে কৃষকদের উৎসাহিত করার কাজে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ তৌহিদুল ইকবাল এর দিকনির্দেশনায় এবং সদর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শাহ মুহম্মদ শাখাওয়াত এর দিক নির্দেশনায় উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন মাঠে মাঠে পোকা, রোগ বালাই দমনে পর্যবেক্ষন করে স্থানীয় কৃষকদের এই বালাই দমনে নিরলস ভাবে উৎসাহিত করে চলেছেন। তারা মাঠে মাঠে ৪০-৫০ জন কৃষকে একত্রিত করে কারেন্ট পোকা, মাজেরা পোকা, ব্লাষ্ট, গোড়পোচা রোগ সহ বিভিন্ন রোগ বালাই দমনে ও ইদুর দমনে প্রযুক্তি সম্বলিত লিফলেট ও প্রেসক্রিপশন, স্লিপ কৃষকদের মাঝে বিতরন করছেন। এ মহতী কার্যক্রমের ফলে কৃষকগন সহজে বালাই নাশক সংগ্রহ করে ফসলে প্রয়োগ করতে পারেন এবং ভেজাল কিটনাশক হতে যাতে করে কৃষককূল সুরক্ষা পায় এ জন্য সচেতন হতে পারেন। এই মর্মে কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তা গন সু-পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন। অনেক উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর ইমাম সাহেব ও মসজিদ কমিটির সহযোগীতায় মুসল্লিদের নিকট পোকা, মাকড় রোগ বালাই দমনের বার্তা পৌছে দিচ্ছেন। রাতে আলোর ফাঁদের আয়োজন করে কৃষকগনকে কারেন্ট পোকা সহ বিভিন্ন জাতের পোকার উপস্থিতি পর্যবেক্ষন করাচ্ছেন। দিনাজপুর সদর উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে এবং পৌরসভার অনেক স্থানে সন্ধ্যার পর উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন কৃষক উদ্বুদ্ধকরন সভার আয়োজন করে সেখানে কৃষি অফিসার / কৃষি সম্প্রসারন অফিসার/ উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষন অফিসার যে কোন একজনকে উপস্থিত রেখে কৃষকদের বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য উৎসাহিত করছেন। দিনাজপুর সদর উপজেলার কৃষি অফিসার শাহ মুহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন জানান, কৃষকদের কল্যানের জন্য আমাদের আন্তরিক আপ্রাণ প্রচেষ্ঠা অব্যাহত থাকবে। আমার উপ-সহকারী কর্মকর্তাগন দিনে ও রাতে প্রচারনা চালাচ্ছেন এবং সন্ধ্যার পরেও কৃষক সমাবেশ ও ভিডিও প্রদর্শনী করে এবং বক্তব্য দিয়ে প্রচারনা চালাচ্ছেন। এই উদ্যোগ এর ফলে ও সংশিষ্ট সকলের সহযোগীতায় আমন ধানের বাম্পার ফলন ঘরে তোলা সম্ভব হবে। উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষন অফিসার মোঃ গোলাম মোস্তফা জানান, সদরে ব্রি-ধান-৫১,-১০%, ব্রিধান-৩৪,-৬৫%,ব্রি- ধান-৫২,-৭%, স্বর্ন-১০%, ব্রি-ধান-৪৯,-৫% অন্যান্য ধান ৩%, সদরের বিভিন্ন ইউনিয়নে রোপন করা হয়েছে। যা এ পর্যন্ত ভাল রয়েছে। সম্প্রতি অতিরিক্ত কৃষি সচিব মি. কমলা রঞ্জন দাশ ও ডিএইর অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ সিরাজুল ইসলাম উক্ত মাঠগুলি পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। দিনাজপুর ডিএইর উপ-পরিচালক তৌহিদুল ইকবাল এই প্রতিনিধিকে জানান, আমি ও অন্যান্য অফিসার গন সার্বক্ষনিক মাঠ অফিসারদেকে নজরদারীতে রেখেছি। তাদের ছুটি বাতিল করে মাঠ পরিচর্যায় ব্যস্ত রেখেছি। ২নং সুন্দরবন ইউপির কালিকাপুর বেলবাড়ী ব্লকের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল মতিন, সুন্দরবন ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ এনামুল হক, ৩ নং ফাজিলপুর ইউপির মহারাজপুর ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মোঃ বোরহান আহম্মেদ জানান এ পর্যুন্ত ফসল রক্ষায় কৃষক-কৃষানীদের নিয়ে মাঠে কাজ চলছে। কৃষকদের এ ব্যাপারে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে যাতে কৃষকের মাঠে কোন পোকা ও রোগ বালাই যাতে দেখা না দেয় এ জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি।
বৃহত্তর দিনাজপুর অঞ্চলের ডিএইর অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, কৃষকদের স্বার্থ সংরক্ষনের লক্ষ্যে ও পোকা ও রোগ বালাই দমনে আমরা নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

 

 

এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Prodip Roy