সবুজ বাংলা নিউজ
  1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০২:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কুড়িগ্রামে শিশুশ্রম সবচেয়ে বেশি কাহারোল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত দিনাজপুর বীরগঞ্জে ৯ নং সাতোর ইউনিয়নের দলুয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয় আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপির রোগমুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত বীরগঞ্জে আর্দশ কৃষকদের মাঝে প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক নারীর কাহারোলে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বীরগঞ্জ উপজেলা রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে ‘জাম্ক ফুড, পথ ও খোলা খাবার না খেলে অনেক রোগ থেকে মুক্তি মিলে’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে ৩টি ওয়ার্ডে চলাচলে বিধি নিষেধ আরোপ বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে এমপি গোপাল এর রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৫ মার্চ, ২০২০
  • ১৮ জন দেখেছেন

বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বেড়েছে শিশু রোগী

বিকাশ ঘোষ,বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বীরগঞ্জে হঠাৎ বেড়েছে আবহাওয়া পরিবর্তনের সাথে সাথে শুরু হয়েছে নানা রোগ। দিনে গরম আর রাতে ঠান্ডা চলছে। এ ধরণের আবহাওয়া পরিবর্তন জনিত রোগের কারণে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সাধারণ রোগীরদের সাথে শিশু ও বৃদ্ধ রোগীদের সংখ্যা। বিশেষ করে কয়েক দিনের ব্যবধানে শুধু মাত্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশু রোগী বেড়েছে প্রায় ৪০ শতাংশ। অর্থাৎ গত ফেব্রুয়ারি মাসে প্রায় ৫৫০ বিভিন্ন রোগের রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। এক্ষেত্রে অভিভাবকদের সতর্ক এবং সচেতন থাকার পরামর্শ প্রদান করছেন চিকিৎসকরা। বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত দুই সপ্তাহে ৫০ শয্যা হাসপাতালে শুধু মাত্র শিশু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৪০ শতাংশ। দিনের বেলা প্রচন্ড তাপ দাহের শেষে রাতে শীতের প্রকোপ বৃদ্ধির সাথে সাথে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশু রোগীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সর্দি, কাশি,জ্বর, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া,জন্ডিস সহ ঠান্ডাজনিত নানারোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা উপজেলার ৯নং সাাতোর ইউনিয়নের প্রাণনগর গ্রামের রহিমা বেগম জানান, তাঁর এক বছর বয়সী মেয়ে খাদিজা ঠান্ডাজনিত সমস্যায় গত তিন দিন ধরে পল্লী চিকিৎসকের দোকান থেকে ওষুধ কিনে খাইয়েছি। কিন্তু এতে খুব বেশি উপকার হয়নি। যে কারণে মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য এসেছেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা,মোঃ সাইফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন,হঠাৎ আবহাওয়া পরিবর্তন হওয়ার ফলে হাসপাতালে ঠান্ডাজনিত শিশু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। মূলত বিগত সপ্তাহখানেক ধরে হাসপাতালে বৃদ্ধ ও শিশু রোগীদের সংখ্যা অনেকাংশ বেড়েছে। শিশুদের ক্ষেত্রে নিউমোনিয়া প্রকোপ তেমন একটা না থাকলেও শ্বাসকষ্ট, সর্দি, কাশিতে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে তাঁরা। তিনি অভিভাবকদের শিশুদের প্রতি যত্নবান হওয়ার পরামর্শ প্রদান করেন। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা: মোঃ আনোয়ার ইসলাম বলেন, ঠান্ডা বাতাস ফুসফুসে গেলে শ্বাসকষ্ট, নিউমোনিয়াসহ বিভিন্ন ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। বিশেষ করে ছোট বাচ্চারা ঠান্ডাজনিত রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে শিশুদের পরিবারের সদস্যদের সতর্ক থাকতে হবে। উপজেলা স্বাস্থ্যও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা, মোঃ আনোয়ার উল্ল্যাহ জানান, আবহাওয়া পরিবর্তজনিত কারণে আগের তুলনায় হাসপাতালের আউটডোর ও ইনডোরে শিশু রোগী অনেকাংশ বেড়েছে। তবে ভয় পাবার কিছু নেই। এ জন্য অভিভাবকদের শতভাগ সচেতন ও সতর্ক হতে হবে।

  • 28
    Shares
এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Prodip Roy