শার্শার বাগআঁচড়ায় “মা মনি হাসপাতাল” ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও ডাঃ হাবিবুল বাশার’র (সাতক্ষীরা) অপচিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু শার্শার বাগআঁচড়ায় “মা মনি হাসপাতাল” ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও ডাঃ হাবিবুল বাশার’র (সাতক্ষীরা) অপচিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু – সবুজ বাংলা নিউজ
  1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বীরগঞ্জে রাবিস বালু দিয়ে চলছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নিমার্ণ কাজ।এলাকাবাসীদের মানববন্ধন ঠাকুরগাঁওয়ে হারিয়ে যাচ্ছে কঁচু শাখ, নেই কোন কঁচু শাখের কদর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা যুবদলের তারিফ বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনা করেছেন ফুলবাড়ীয়ার লেবু যাচ্ছে বিদেশে, বাড়ছে লেবু চাষের আগ্রহ নীলফামারীর ডিমলায় তিস্তার চরে ভুট্টার বাম্পার ফলন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষকে আশান্বিত করেছেন’ -মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি বীরগঞ্জ পৌরসভায় পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে টিসিবি’র কার্যক্রম উদ্বোধন সাপাহারে ভ্রাম্যমান আদালতে দু’টি ইটভাটার অর্থদন্ড সাপাহারে কোভিড আক্রান্ত রোগীদের খোঁজ নিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন সাপাহারে হতে সকলের অশ্রুসিক্ত ভালোবাসা নিয়ে বিদায় নিলেন কল্যাণ চৌধুরী

শার্শার বাগআঁচড়ায় “মা মনি হাসপাতাল” ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ ও ডাঃ হাবিবুল বাশার’র (সাতক্ষীরা) অপচিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু

প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২০
  • ১৯ জন দেখেছেন

মোঃ হাসানূল কবীর, খুলনা ব্যুরো চীফঃ যশোর শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়ায় আঁখি টাওয়ারে অবস্হিত “মা মনি হাসপাতাল প্রাইভেট লিঃ” নামে একটি বেসরকারী ক্লিনিকে শনিবার (২৮শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং) সন্ধ্যায় সিজারের ৪ দিন পর সেলিনা খাতুন (৪০) নামে এক প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হয়েছে। মৃত সেলিনা খাতুন শার্শা উপজেলার ইছাপুর গ্রামের রওশন আলীর স্ত্রী। মৃত্যু সেলিনা খাতুনের আম্মা মনোয়ারা বেগম যিনি সর্বদা সেবা-শুশ্রূষার জন্য ক্লিনিকে সেলিনার পাশে ছিলেন তার কাছে জানতে চাইলে তিনি তার অভিযোগে মৃত্যুর জন্য সম্পূর্ণ ক্লিনিক কর্তৃপক্ষকে দায়ী করেন। মনোয়ারা বেগম বলেন এই ক্লিনিকে সঠিকভাবে চিকিৎসা সেবা না পেয়ে আমার মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। তিনি এবং তার স্বজনেরা আরও জানান, মৃত সেলিনা খাতুনকে শনিবার (২৪/১১/২০১৯ ইং) ভর্তি করলে ডাঃ মোঃ হাবিবুল বাশার সাতক্ষীরা থেকে এসে তার তত্বাবধানে সিজার করে অদক্ষ নার্স এবং কম্পাউন্ডারদের দায়িত্বে রেখে যায়, শুক্রবার (২৭শে নভেম্বর)
উক্ত সিজারিয়ান মহিলার পেটে অপারেশনের স্থান থেকে রক্ত বের হতে থাকে তখন কম্পাউন্ডার এবং নার্সরা পূর্বের সেলাই কেঁটে উক্ত স্থানে পুনরায় ৫টি সেলাই দেন। পরের দিন শনিবার (২৮শে নভেম্বর) দুপুরে ব্লাড প্রেশার বেড়ে গেলে নার্স এবং কম্পাউন্ডাররা তাকে ট্যাবলেট খাওয়ায়, ট্যাবলেট খাওয়ানোর পরে তার শরীরে ভীষণ অস্বস্তি শুরু হয় তারপর তার শরীরে ইনজেকশন পুশ করে এবং তখন তার শরীরের শিরা সমূহ প্রচণ্ড টান ধরে কসতে থাকলে মুখে ফেনা উঠে তার মৃত্যু হয়।

এই বিষয়ে মা মনি ক্লিনিকের পরিচালক শরীফ আহম্মেদের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, রোগী সুস্হ ছিল তবে ঠিক সময়ে ঔষধ না খাওয়ানোর কারণে রোগীর ব্লাড প্রেশার বৃদ্ধি পেয়ে মারা গেছে। ঠিক সময়ে রোগীকে ঔষধ খাওয়ানো হয়নি কেন এমন পাল্টা প্রশ্ন করলে তিনি এখন ব্যস্ত আছি বলে ফোন কেটে দেন। উল্লেখ্য, সরেজমিনে উক্ত ক্লিনিক পরিদর্শন করে দেখা যায়, ভীষণ অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে এই ক্লিনিকে রোগীদের চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

এই বিষয়ে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সুকদেব রায় জানান, আমরা অভিযোগ পায়নি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্হা গ্রহণ করা হবে।

  • 55
    Shares
এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Prodip Roy