পৌষের শুরুতে শীতে কাঁপছে বীরগঞ্জবাসী পৌষের শুরুতে শীতে কাঁপছে বীরগঞ্জবাসী – সবুজ বাংলা নিউজ
  1. [email protected] : সবুজ বাংলা নিউজ : সবুজ বাংলা নিউজ
  2. [email protected] : বার্তা বিভাগ : বার্তা বিভাগ
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৬:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছে বিএনপি বীরগঞ্জ উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের আয়োজনে দিনাজপুর- ১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য এমপি’র সুস্থ্যতা দোয়া কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। কুড়িগ্রামে শিশুশ্রম সবচেয়ে বেশি কাহারোল উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত দিনাজপুর বীরগঞ্জে ৯ নং সাতোর ইউনিয়নের দলুয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও মহাবিদ্যালয় আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপির রোগমুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত বীরগঞ্জে আর্দশ কৃষকদের মাঝে প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত এক নারীর কাহারোলে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বীরগঞ্জ উপজেলা রিক্সা ও ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের আয়োজনে মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত কুড়িগ্রামে ‘জাম্ক ফুড, পথ ও খোলা খাবার না খেলে অনেক রোগ থেকে মুক্তি মিলে’ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

পৌষের শুরুতে শীতে কাঁপছে বীরগঞ্জবাসী

বার্তা ডেক্স
  • প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ২২ জন দেখেছেন

বিকাশ ঘোষ,বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের বীরগঞ্জে পৌষের শুরুতে জেঁকে বসেছে শীত। নেপাল থেকে ভারতের বিহার হয়ে বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ এলাকায় ঘুন কুয়াশা ছড়িয়ে পড়েছে। এই কুয়াশার সঙ্গে উত্তরাঞ্চলের সাতটি জেলা রাজশাহী, পাবনা, নওগাঁ, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় ব্যয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে,শৈত্যপ্রবাহ ও ঘুন কুয়াশা থাকতে পারে আরও দুই দিন। গত চার থেকে দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার সর্বত্রই শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছে। প্রচন্ড শীতে কাঁপছে বীরগঞ্জ উপজেলাবাসী। গরম কাপড়ের দোকানে উপছে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পৌষ মাসের শুরু সাথে সাথেই শীত জেঁকে বসেছে । এতে সর্বত্র কুয়াশার চাদের ঢাকা পড়েছে। তাপমাত্রা নেমে আসার পাশাপাশি প্রচন্ড হিমেল হাওয়ায় স্থবির হয়ে পড়েছেন উপজেলার সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের জীবনযাত্রা। ঘুন কুয়াশার সাথে হিমেল হাওয়া যুক্ত হয়ে জনজীবন নাকাল করে তুলেছে। গত তিন দিনে সূর্যের দেখা মিলেও শুক্রবার সারাদিন সূর্যের দেখা মেলেনি। বিশেষ করে রিক্সা – ভ্যান শ্রমিক ,কৃষক -কৃষোণীদের মধ্যে চরম দুর্ভোগ পোয়াতে হচ্ছে। কনকনে শীতে বৃদ্ধা ও শিশুদের মাঝ ডায়রিয়াসহ ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন ধরণের রোগ দেখা দেওয়ার আঙ্কা করা হচ্ছে। মৃদু শৈত্যপ্রবাহে পর্যাবৃত্ত পরিমাণে শীতবস্ত্র ও কম্বল না থাকায় বিপাকে পড়েছে ছিন্নমূল মানুষেরা। ঘন কুয়াশার কারণ দূরপাল্লার যানবাহনগুলো হেডলাট চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। শীতকালীন ফসল সরিষা, গম,আলু, বেগুন, পেঁয়াজ, মরিচ ও বোরোধানের বীজতলায় শীত রোগে আক্রমণের প্রভাব ফেলেছে।

  • 64
    Shares
এ বিভাগের আরও সংবাদ:
© All rights reserved © 2019 Sabuj Bangla News
Web Designed By : Prodip Roy