সৈয়দপুরে অস্থির সবজি বাজার

0
4

মোঃ রাব্বি ইসলাম আব্দুল্লাহ, সংবাদদাতা নীলফামারী। সৈয়দপুরে হঠাৎ করে সবজির বাজার অস্থির হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচের দামের ঝাঁঝে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষ।সেই সঙ্গে যথেচ্ছাভাবে বেড়েছে অন্যান্য সবজির দাম। দাম বেড়েছে ভোজ্যতেল সোয়াবিনেরও।

বর্তমানে বাজারে ৪০/৫০ টাকার নীচে কোন সবজিই মিলছে না। এদিকে পেয়াঁজসহ সবজি পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে সরকার নানা উদ্যোগ নিলেও তা আমলে নিচ্ছে না ব্যবসায়ীরা। একই সঙ্গে স্থানীয় পর্যায়ে কাগজে-কলমে উপজেলা বাজার নিয়ন্ত্রণ মনিটরিং কার্যক্রম থাকলেও বাস্তবে এর কোন কার্যক্রম চোখে পড়ছে না। ফলে বাজারের দাম নিয়ন্ত্রণ করছে অসাধু ব্যবসায়ীরা।

আজ( ১১ সেপ্টেম্বর) শুক্রবার শহরের পৌর আধুনিক সবজি বাজার,ও সাহেবপাড়া কারখানা গেট বাজার ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন সবজির দাম লাগামহীনভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে বাজারে ৪৫ টাকা কেজির পেঁয়াজ ৬০ টাকা, ১৫০ টাকার কাঁচা মরিচ ২০০ থেকে ২২০ টাকা, ১০০ টাকার রসুন ১২০ টাকা, ১৮০ টাকার আদা ২৪০ টাকা, ২৫ টাকার আলু ৩৫ টাকা, ৩০ টাকার পটল ৫০ টাকা, ৪০ টাকার কাকরোল ৫০ টাকা, শাক জাত ভেদে ৩০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে বরবটি, খিরা, লাউসহ কয়েকটি সবজির দাম একটু কমেছে। অপরদিকে চালসহ মুদি পণ্যের দাম নতুন করে না বাড়লেও ভোজ্যতেল সোয়াবিনের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজারে ৮৫ টাকার খোলা সোয়াবিন ৯৬ থেকে ১০০ টাকায় এবং ১ লিটার বোতলজাত সোয়াবিন তেল ১০০ টাকার স্থলে ১০৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হঠাৎ করে সবজির বাজার উর্ধ্বমুখী হওয়ায় কম আয়ের মানুষের সবজি কিনতে নাভিশ্বাস উঠেছে।

সবজির দাম বৃদ্ধি প্রসঙ্গে সবজি ব্যবসায়ী মো. শাকিল জানান, অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে মোকামে সবজির আমদানি কমে গেছে। ফলে সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। একইভাবে পেঁয়াজের মোকামে পাইকারী মূল্য বেড়ে যাওয়ায় পেঁয়াজের দামও বেড়ে গেছে। এতে ব্যবসায়ীদের করার কিছু নেই। এ ব্যাপারে পেঁয়াজ আমদানিকারক তোফায়েল মোহাম্মদ আজম বলেন, ভারতের অভ্যন্তরীণ বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। আগে প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজ ২০০ ডলারে কেনা গেলেও এখন কিনতে হচ্ছে ৩০০থেকে ৩১২ ডলারে। এর সঙ্গে সরকারি ভ্যাট ট্যাক্স রয়েছে। এ কারণে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে ব্যবসায়ীদের কোন কারসাজি নেই।

 

 

 

 

  • 3
    Shares