বীরগঞ্জে মধুবনপুর- বাছারগ্রাম বালু মহাল ইজারা বাতিলের দাবীতে গণ আবেদন

0
9

বিকাশ ঘোষ,বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :

দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার পাল্টাপুর ইউনিয়নের মধুবনপুর – বাছাড়গ্রাম বালু মহাল থেকে ইতঃপূর্বে বালি পরিবহনের ট্রলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় অনেকেই আহত, একই সঙ্গে তিনজনের মৃত্যুর কারণে এবং হাজারো শিক্ষার্থীদের জীবন রক্ষাসহ পথচারীদের দুর্ভোগের কবল থেকে রক্ষা করতে উক্ত বালু মহাল ইজারা না দিয়ে বাতিল করনের জন্য গণ আবেদন করা হয়েছে। এব্যাপারে এলাকাবাসীর পক্ষে পাল্টাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম ভোগডোমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ মূসা মিয়াসহ স্থানীয়ভাবে বসবাসকারী ১১৯ ব্যক্তি স্বাক্ষরিত আবেদনপত্র দিনাজপুর জেলা প্রশাসক বরাবর জমা দেয়া হয়েছে। উক্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৩০ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়,দিনাজপুর রাজস্ব (এস এ) শাখার স্বারক নং- ০৫.৫৫.২৭০০.০১১.০৫.০৩০.১৬.৩০৫/১ মোতাবেক রেভিনিউ ডেপুটি কালেষ্টার নাশিদ কায়সার রিয়াদ স্বাক্ষরিত বিষয় মধুবনপুর -বাছাড়গ্রাম বালু মহালটি ইজারা প্রদান না করে বাতিল করনের একটি খোলা ডাকপত্র বীরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে প্রেরণ করেন। উল্লেখ্য যে,অত্র এলাকার ভোগডোমা, ভোগডোমা গুচ্ছগ্রাম, ভোগডোমা আশ্রয়ন, মধুবনপুর, খামার মধুবনপুর, বাছাড়গ্রাম, ছয়ঘটি, বাজিবপুর গ্রাম সমূহে উপজেলা সদর থেকে চলাচলের জন্য অতি সংকির্ন একটি মাত্র পাকা রাস্তা থাকলেও বিগত ২০১৭ সালের বন্যায় রাস্তাটির বেহাল দূরদশা দেখা দেয়। এই রাস্তা থেকে বালু মহাল পর্যন্ত সংযোগ গ্রামীণ কাঁচা রাস্তাগুলো কাদাযুক্ত হওয়ার বষা মৌসুমে এসব এলাকায় বৈবাহিক অনুষ্ঠান সহ সকল প্রকার সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ থাকে এবং যাতায়াতের জন্য চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। উপরন্তু উক্ত রাস্তাগুলি দিয়ে বেপরোয়া ভাবে ট্রলি/ ট্রাক্টর দিয়ে যত্রতত্র বালু পরিবহন করায় রাস্তাটিতে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে এলাকাবাসীসহ হাজারো শিক্ষার্থীর জানমাল হুমকির মধ্যে পতিত হচ্ছে। এলাকার পূর্ব শম্ভূগাঁ ডাঙ্গাপাড়া,প্রা: বিদ্যালয়, ভোগডোমা আশ্রয়ন, সর:প্রা:বিদ্যালয়, ভোগডোমা প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম ভোগডোমা প্রা: বিদ্যালয়, খামার মধুবনপুর সাঃ প্রাঃবিদ্যালয়, দক্ষিণ রঘুনাথপুর সঃ প্রাঃ বিদ্যালয়, মধুবনপুর সঃপ্রাঃবিদ্যালয়, রাহমানিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা, রাজিপুর দাখিল মাদ্রাসা ও প্রা: বিদ্যালয়, ভোগডোমা ইব্রতেদায়ি মাদ্রাসা, বাছাড়গ্রাম সঃ প্রাঃবিদ্যালয়, দক্ষিণ রঘুনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ অত্র এলাকার জনসাধারণের মসজিদ – মন্দিরের চলাচলের জন্য কাঁচা রাস্তাগুলি পাককরণ ও একমাত্র পাকা রাস্তাটি মেরামত না করা পর্যন্ত উল্লেখিত বালু মহাল ইজারা না দিয়ে বাতিল করণের গণ আবেদন করেছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী। এব্যাপারে ৩ সেপ্টেম্বর সরেজমিনে বালু মহালে পরিদর্শনে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। পশ্চি ভোগডোমার গুচ্ছগ্রামের পাশ্ব থেকে অবৈধ যান ট্রলি এবং ট্রাক্টর দিয়ে উন্মুক্ত ভাবে (তীর্পল বিহিন) বালু পরিবহন করতে দেখা যায়। বর্তমান করোনা কালীন ছুটি থাকায় স্কুলগামী শিক্ষার্থীরা ঘরে থাকলেও যত্রতত্র ভাবে ট্রলি চলাচলের কারণে কাঁচা রাস্তাগুলির এমন বেহাল অবস্তা হয়েছে যে জরুরী প্রয়োজনে এ্যাম্বুলেন্স, মোটরসাইকেল, বাইসাইকেল, ভ্যান-রিকশা কিংবা অন্যকোনোযান চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে, এমনটি পথচারীদের হেটে চলাচলেরও অনুযোগী হয়ে পড়েছে গ্রামের কাচা রাস্তাগুলো। বিষয়টি বিবেচনা করে উল্লেখিত বালু মহালটি পুনরায় ইজারা না দিতে এবং বর্তমান ইজারা বাতিল করে জনসাধারনের চলাচলের নিরাপদ রাস্তা,জান- মাল রক্ষা করতে ঊর্ধতন কতৃপক্ষের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভুগক্তভোগী এলাকাবাসীরা।

  • 11
    Shares