বীরগঞ্জে জমে উঠেছে মৌসুমী লিচুর বাজার, ব্যস্ত ক্রেতা-বিক্রেতা ও ফরিয়ারা

0
0

বীরগঞ্জ, দিনাজপুর থেকে বিকাশ ঘোষ ॥

বাংলা সানের এই মাসটি পরিচিত মধুমাস হিসেবে। দিনাজপুরের বীরগঞ্জ বাজারে উঠতে শুরু করেছে রসে ভরপুর সুমিষ্ট ও সুস্বাদু নানা ফল। রসালো বিভিন্ন জাতের লিচুর ঘ্রাণ ছড়াচ্ছে বাজার জুড়ে।তাইতো করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বীরগঞ্জে জমে উঠেছে মৌসুমি ফল লিচুর বাজার। সামাজিক দূরত্বকে পাত্তা না দিয়ে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় প্রতিদিনই এসব মৌসুমি ফলের পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের জটলা দেখা যাচ্ছে পৌরশহরের তাজমহল সিনেমাহলের আশেপাশে। বোম্বাই, বেদনা, চাইনা ২.৩.৪ লিচু, কাঁঠালি ও গোলাপিসহ বিভিন্ন নামে লিচুর সর্বত্র মৌ মৌ গন্ধ ছড়িয়ে যাচ্ছে। এসব মৌসুমি রসালো লিচু প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে নিয়ে আসে ব্যবসা করাচ্ছেন বিক্রেতারা। লিচু বিক্রেতা হাশেম আলী জানান, আমরা বিভিন্ন বাগান থেকে বিভিন্ন জাতের লিচু কিনে এনেছেন। গতবারের চেয়ে এখন পর্যন্ত লিচুর দাম স্বাভাবিকই রয়েছে। দুপুরের পর পরই বিক্রি বেশ ভালো বেচাকেনা হয়। বোম্বাই ১২০- ১৩০ টাকা। বেদনা লিচু ২২০ থেকে ২৫০ টাকা,চায়না ২-৩ যথাক্রমে ৩০০ থেকে ৫৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। লাল টসটসে অনন্য স্বাদের দিনাজপুরের বীরগঞ্জে লিচু এখন বাজারে। জমে উঠেছে লিচুর বাজার। অন্য রকম মিষ্টি আর বর্নিল মনকাড়া দৃষ্টি নন্দন রসে টাইটুম্বুর বিভিন্ন জাতের লিচুর মধ্যে রায়েছে বেদানা, বোম্বাই, মাদ্রাজি, চায়না থ্রি আর কাঁঠালি লিচু। লিচু বাগানে মৌ মৌ সুগন্ধে মাতাল করেছে মানুষদের। পর্যায় ক্রমে বিভিন্ন জাতের পাকা লিচু বাজারে আসতে শুরু করায় ব্যবসায়ী, ক্রেতা-বিক্রেতা ও ফরিয়ারা ব্যস্ত হয়ে পরেছেন। দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার ১১ ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা জুড়ে লিচুর আবাদ হয়ে থাকে। তার মধ্যে পাল্টাপুর ও বীরগঞ্জ সদর উপজেলার লিচু সু-স্বাদু ও উন্নত মানের। এ এলাকার লিচুর গুণ ও মানে চাহিদা দেশ জুড়ে। বীরগঞ্জ উপজেলার ১নং শিবরামপুর, ২নং পলাশবাড়ী, ৩নং শতগ্রাম, ৪নং পাল্টাপুর, ৫নং সুজালপুর, ৬নং নিজপাড়া, ৭নং মোহাম্মদপুর, ৮নং ভোগনগর, ৯নং সাতোর, ১০ মোহনপুর, ১১ নং মরিচা ইউনিয়ন ও পৌরসভার তাজমহল সিনেমাহলের সামনে চোখে পড়ার মতন লিচুর বাজার জমে উঠেছে। দেশের উৎকৃষ্টমানের লিচু উৎপাদন করে লিচু চাষিগণ।

  • 30
    Shares