নীলফামারীতে প্রায় ১ কোটি টাকার কষ্টিপাথর উদ্ধার

0
8

মোঃ রাব্বি ইসলাম আব্দুল্লাহ,
নীলফামারী জেলা প্রতিনিধী।

নীলফামারীর সৈয়দপুরে প্রায় কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরে তৈরী শিল্পকর্মের ভাঙ্গা অংশ জব্দসহ এক চোরাকারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

১০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা গোয়েন্দা শাখার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ রেজানুর রহমান।

এর আগে গত সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে জেলার সৈয়দপুর-পাবর্তীপুর মহাসড়কের চৌমুহনী বাজার মোড় থেকে ওই কষ্টিপাথরটি জব্দসহ চোরাকারবারি রওশন সরকারকে (১৯) গ্রেপ্তার করা হয়। সে দিনাজপুর জেলার পাবর্তীপুর উপজেলার বেলাইচ-ী মাস্টারপাড়া গ্রামের শামসুল হকের ছেলে।

ডিবি জানায়, চোরকারবারিরা মুল্যবান পুরার্কিতী পাচার করছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে ডিবি’র উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ রেজানুর রহমানের নেতৃত্বে ডিবি’র একদল সদস্য ৭ সেপ্টেম্বর বিকালে সৈয়দপুর-পাবর্তীপুর মহাসড়কের চৌমুহনী বাজার মোড়ে অবস্থান নেয়। এসময় চোরাকারবারিরা ডিবি’র উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেস্টাকালে চোরাকারবারি দলের সদস্য রওশন সরকারকে (১৯) আটক করে তার হাতে থাকা একটি ব্যাগে লুঙ্গি দিয়ে মোড়ানো মূলবান কষ্টিপাথরের তৈরী শিল্পকর্মের ভাঙ্গা অংশ জব্দ করা হয়। ৩ দশমিক ৩৮৩ কেজি ওজনের কষ্টিপাথরটির এক প্রান্তের দৈর্ঘ্য ৭ ইঞ্চি অপর প্রান্তের দৈর্ঘ্য ৫ দশমিক ৫০ ইঞ্চি এবং প্রস্ত ৬ ইঞ্চি।

নীলফামারী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরির্দশক মো. হারুন অর রশীদ বিষয়টি নিশ্চিৎ করে বলেন, জব্দকৃত কষ্টিপাথরটি জেলা জুয়েলার্স সমিতির মাধ্যমে পরীক্ষা নিরিক্ষা করা হয়েছে। এটি একটি মূল্যবান কষ্টিপাথর। যার বাজার মূল্য ৯২ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা। এ ঘটনায় রওশন সরকারসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার সৈয়দপুর থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-বি(১)এ(২)/২৫-ডি ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই দিনই রওশনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারের ডিবি’র অভিযান অবাহ্যত রয়েছে।

 

 

 

 

  • 12
    Shares