ঠাকুরগাঁওয়ে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

0
18

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :

প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া ঠাকুরগাঁওয়ে সড়কের পাশ থেকে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয়বাসিন্দা জানে আলমের বিরুদ্ধে। পরে প্রশাসন গিয়ে কেটে রাখা ৩টি কাঁঠাল গাছ জব্দ করে।

শনিবার বিকেলে সদর উপজেলার আখানগর ইউনিয়নে শুকানিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

তবে অভিযুক্ত ব্যক্তির দাবি তিনি গাছগুলো ক্রয় করেছেন স্থানীয় নইমুদ্দিন নামের এক ব্যক্তির কাছে।

গাছ কর্তনকারী জানে আলম আখানগর ইউনিয়নের ধনী পাড়া শফিজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব রয়েছেন।

জানে আলম বলেন, ধনিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা নঈমুদ্দিন (১০৫) পাশ্ববর্তী শুকানিপাড়া গ্রামে রাস্তা সংলগ্ন নিজের জমিতে কয়েকটি কাঁঠাল গাছ রোপন করেন। অসুস্থ হওয়ায় নঈমুদ্দিন ওষুধ কেনার টাকা না থাকায় তার রোপকৃত ৩টি কাঁঠাল গাছ আমার কাছে বিক্রি করেন। যার মূল্য দেয়া হয়েছিল ১৪ হাজার টাকা। টাকা দিয়ে গাছগুলো কেনার পর সেগুলো কর্তন করা হয়।

গাছ বিক্রেতা নঈমুদ্দিন বলেন, ৩টি কাঁঠাল গাছ আমিই রোপন করেছিলাম। ওষুধ কেনার টাকার জন্য গাছগুলো বিক্রি করে দেই জানে আলমের কাছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ৩টি কাঁঠাল গাছ রাস্তার জমিতে রয়েছে। এ গাছগুলো কাটতে হলে অবশ্যই সরকারি নিয়ম অনুযায়ী কাটতে হবে। অথচ তারা সরকারি নিয়মকানুন না মেনে গাছগুলো কেটে ফেলেছে।

এলাকাবাসীর মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে সরকারি রাস্তার পাশ থেকে কেটে ফেলা ৩টি কাঁঠাল গাছ জব্দ করে উপজেলা প্রশাসন।

এ ব্যাপারে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল থেকে কেটে ফেলা ৩টি কাঁঠাল গাছ জব্দ করা হয়েছে। বিষয়টির তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • 12
    Shares