গাইবান্ধায় আলম হত্যা মামলার বিচারের দাবিতে ফুসে উঠেছে এলাকা বাসী

0
4

 

আসাদুজ্জামান রুবেল
গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগন্জ উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউপির কিশামত হলদিয়া গ্রামের মৃতু খতিব উদ্দিনের ছেলে আলম মিয়া( ৪৬) কে স্রী শ্বশুর, শ্যালক কতৃক গলা কেটে হত্যার অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই হত্যার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের সঠিক তদন্ত পূর্বক ব্যবস্তা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে জোড় দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসীর।

মামলা সূত্রে জানা যায়,গত ৬মে বিকাল ৪:৩০ ঘটিকায় আলম মিয়া কে তার নিজ বাড়ীর রান্না ঘরে বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে।
আলম হত্যার বিষয়ে পরের দিন তার মা ছামিরন বেওয়া বাদী হয়ে সুন্দরগন্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। যাহার জিআর নং ১৮৪/২০।

দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ এই হত্যা কান্ডের কোন তথ্য উর্দঘাটন করতে না পারায় আলমের পরিবার ন্যায় বিচার থেকে বন্চিত হওয়ার আশঙ্কায় আলমের বিমাতা ভাই আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে সেলিনা বেগম, রেজাউল হক, শাহাজল ও আরোও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন কে আসামী করে বিঞ সুন্দরগন্জ আমলী আদালত গাইবান্ধায় দঃ বিঃ ১১৪/৩৪/৩০২ ধারায় গত ১৫/০৭/২০২০ তারিখে একটি সিআর মামলা দাখিল করেন।

আলমের পরিবারের দাবী আলম প্রায় ১ বছর থেকে শারিরীক ভাবে অসুস্ত থাকায় তার স্রী সেলিনা বেগম প্রায়ই আলমের সহিত ঝগড়া বিবাদ এবং পরকীয়ার সাথে লিপ্ত ছিলেন।

এরই সূত্র ধরে এই হত্যা কান্ড সংঘটিত হয়েছে বলে তার পরিবারের দাবি।
হত্যার বিষয়ে এলাকাবাসী জানান আলম মিয়া একজন ভাল মানুষ ছিল সে দীর্ঘদিন থেকে শারিরীক অসুস্ততায় ভুকছিলেন। আমরা জানতে পারি যে তার স্রীর সাথে প্রায়ই দন্দ্ব-কলহ লেগেই থাকতো। ঘটনার দিন দুপুর বেলায় তার স্রীর সাথে ঝগড়া লাগে। তার পর বিকাল বেলা জানতে পারি আলম মিয়া মারা গেছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি আলমের গলা কাটা লাশ পরে আছে এবং বাড়ীতে কেউ নেই। তাই প্রশাসনের কাছে দাবি করছি সঠিক তদন্ত পূর্বক এই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার পূর্বক বিচারের দাবি করছি। আলমের চাচা জোব্বার আলী জানান, আমরা আলম হত্যার সঠিক বিচার চাই।