করোনা মোকাবেলায় অদম্য ও মানবিক যোদ্ধা খানসামার ইউএনও মাহবুব

0
0

কাহারোল প্রতিনিধি: বৈশ্বিক মহামারি রুপ নেওয়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার প্রতিটি পাড়া-মহল্লা, গ্রাম ও হাট-বাজার চষে বেড়াচ্ছেন করোনা প্রতিরোধ যুদ্ধের এক অদম্য ও মানবিক যোদ্ধা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম।

সেই কাজের ধারাবাহিকতায় এখনও তিনি সারাদিন করোনার ছোবল থেকে জনগণকে বাঁচাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য সচেতনতামূলক কার্যক্রম,মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরন এবং সরকারী নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

গত ৮মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই থেকেই দাপ্তরিক বিভিন্ন কাজের শত ব্যস্ততা ও চাপের মধ্যেও তিনি খানসামা উপজেলার আড়াই লক্ষ মানুষকে করোনার সংক্রমণ থেকে রক্ষার প্রচেষ্টায় প্রতিদিন নিজের জীবন বাজি রেখে সকাল থেকে সন্ধ্যা,সন্ধ্যা থেকে রাত ছুটে চলছেন পুরো উপজেলা।

চোখে ঘুম নেই,নেই খাওযার চিন্তা,শুধু সার্বক্ষণিক ছুটে চলা আর মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চিন্তা আর জনস্বার্থে সৃজনশীল ও ব্যতিক্রমী কিছু করার প্রচেষ্টা। উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ৫৪টি ওয়ার্ডে কেউ অন্য জেলা বা এলাকা থেকে উপজেলায় প্রবেশ করছে কিনা,কেউ অনাহারে আছে নাকি,কেউ কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশন মানছে কিনা,ব্যবসায়ীরা স্বাস্থবিধি ও সরকারী নির্দেশনা মানছে কিনা, বাড়ির বাইরে বের হওয়ার সময় জনগণ মাস্ক ব্যবহর করছে কিনা এবং সরকারী নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করে যাচ্ছেন এবং সরাসরি কিংবা ফোন,ফেসবুক ও মেসেঞ্জারে যেকোনো সমস্যার তথ্য পেলেই তৎক্ষনাৎ সেখানে ছুটে গিয়ে তিনি সকলের সাথে সমন্বয় করে যে-কোনো সমস্যা দ্রুত সমাধান করেন। এতে জনমনে ইউএনও মাহবুবের প্রতি তৈরী হয়েছে আস্থা ও বিশ্বাস । করোনায় কেউ আক্রান্ত হলেই নিজের জীবনের ঝুকিঁর কথা চিন্তা না করে করোনা রোগীদের মানসিক সাহস যোগাতে তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ,থানা পুলিশ, ইউনিয়ন পরিষদ ও গ্রাম পুলিশ-আনসার সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে ছুটে গেছেন করোনা পজিটিভ রোগীদের বাড়ি। আর করোনা রোগীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপহার দিচ্ছেন পুষ্টি সমৃদ্ধ খাদ্য সামগ্রী এবং করোনা মুক্ত রোগীদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও উপহারের মাধ্যমে আইসোলেশন সেন্টার থেকে বিদায় জানান তিনি।

তিনি প্রায় দুই বছর পূূর্বে খানসামায় যোগদান করেন। এরপর থেকেই ব্যতিক্রমী অনেক উদ্যোগ সফলতার সহিত বাস্তবায়নের জন্য ব্যাপক প্রশসংসিত হয়েছেন এবং জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও হিসেবে নির্বাচিত হন।

এছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে কর্মহীন,অসহায় ও নিম্ন আয়ের পরিবারে সহায়তা দেয়ার পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বেসরকারি সংস্থা ও ব্যক্তি উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণকে উৎসাহিত করায় ইতিমধ্যে উপজেলার কয়েক হাজার কর্মহীন ও অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া সম্ভব হয়েছে। তিনি শুরুর দিকেই করোনা যুদ্ধ মোকাবেলায় নিরলস কাজ করা স্বাস্থ্য বিভাগ ও সকল দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করেন।

তিনি জেলা প্রশাসনের পরামর্শক্রমে উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা,উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ,থানা পুলিশ,জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃৃবৃন্দ,সাংবাদিকবৃন্দ,সুধী সমাজ ও কর্মচারীদেরকে সাথে নিয়ে সফলভাবে সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে ইউএনও আহমেদ মাহবুব-উল-ইসলাম এখন সর্বমহলে ব্যাপক প্রশংসিত।

ইউএনও মাহবুব বলেন, প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মচারী হিসেবে চেষ্টা করে যাচ্ছি সকলকে সম্পৃক্ত করে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করে যাতে খানসামা উপজেলার সকলের জন্য সুস্থ,সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত হয়। আর সকলের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও আল্লাহ তায়ালার রহমতে যেন দ্রুত করোনা মুক্ত হই এটাই চাওয়া।

  • 2
    Shares