জীবন জীবিকার জন্য কাজ করছে শিশু মাহিম

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
19

মাহিমের বয়স ১০ বছর। নাদুস নুদুস চেহারার এই ছোট্ট শিশুটি জীবনের তাগিদে নেমে পড়েছে কর্মসংস্থানে! বাবা মাহাতাব হোসেন দিনাজপুর সরকারি কলেজ মোড়ে সরকারি জায়গাতে চায়ের দোকান করেন। বাবার সামান্য চায়ের দোকানে কর্মচারী রাখা সম্ভব হয়নি! চা বিক্রি করে আয় রোজগার খুব যে বেশি তাও নয়!

তাই ১০ বছরের ছোট্ট মাহিম বাবার দোকানে কর্মচারীর কাজ করছে। যখন এই বয়সে স্কুলে পড়ার কথা তখন মাহিম জীবন যুদ্ধে নেমে পড়েছেন টাকা রোজগার করতে।

চা, বিস্কুট, পানি, সিগারেট কিংবা নাস্তার টেবিলে মাহিমের চলাফেলা! করোনাকালীন সময়ে মাহিমদের স্কুল বন্ধ আবার মাহিমদের আয়-রোজগারও কমে গেছে! বাধ্য হয়ে বাড়িতে বসে খাওয়া ছেড়ে হোটেল বয়ের কাজ করছে। হয়ত এই নেশা মাহিমকে আর স্কুলমুখী নাও করতে পারে! জীবনের বাকিটা সময় কেটে যেতে পারে এই চায়ের দোকানেই!!

এক সময় মাহিমের জীবনে এসব স্মৃতি হয়ে থাকবে। গল্প করবে আর দশজনের কাছে। কত ছোট বেলা থেকে সে চায়ের দোকানে কাজ করছে।

  • 9
    Shares