বীরগঞ্জে দুই সন্তানের জননীককে ধর্ষণের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ দায়ের

0
36

বিকাশ ঘোষ,বীরগঞ্জ(দিনাজপুর) প্রতিনিধি :

দিনাজপুরেরে বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের চাউলিয়া গ্রামের ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকুরিরত মোঃ নুর মোহাম্মদদের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী মোছা: আনোয়ারা বেগমের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়,আনোয়ারার স্বামী বাড়িতে অবস্থান না করায় সুযোগে একই এলাকার মোঃ শামসুল হকের লম্পট ছেলে জয়নাল (৩০) ঘরে স্ত্রী সন্তান রেখে আনোয়ারাকে কু-প্রস্তাব দিয়ে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করে আসতো এবং ধর্ষণের হুমকির একপর্যায়ে গত ১৬ মে ২০২০ ঝড়ো আবহাওয়ার গভীর রাতে আনোয়ারার ঘরের দরজা লাথি মেরে ঘরের ভিতর প্রবেশ করে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করলে ধস্তা ধস্তির ফলে পড়নের ছালোয়ার ছিড়ে যায়,লম্পট জয়নালের কিল-ঘুষিতে আনোয়ারার একটি দাঁত ভেঙ্গে যায়। তৎক্ষণাত আনোয়ারা অত্নচিৎকারে প্রতিবেশি আমির হোসেন, আব্দুল মালেক,নুরজাহান সহ আরো অনেকে এগিয়ে আসলে লম্পট জয়নাল পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরদিন প্রতিবেশিদের সহযোগিতায় আহত আনোয়ারা বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি বিভাগের মহিলা ওয়ার্ডের ৫/২ কেবিনে ভর্তি হয় এবং চিকিৎসা শেষে বীরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সরেজমিনে গেলে আনোয়ারা সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন থেকে লম্পট জয়নালের কু- প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় আজ তাঁর এই অবস্থা হয়েছে এবং এবিষয়ে লম্পটের পিতা শামসুল হক, মাতা জুলেখা বেগমকে একাধিকবার জনালেও পিতা- মাতা শাসন না করে পরিবর্তীতে উল্টা উস্কানিতে এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে। এব্যাপারে আনোয়ারা স্থানীয় ইউপি সদস্য লিপি আক্তারকে সাথে নিয়ে লম্পট জয়নালসহ তার পিতা শামসুল ও মাতা জুলেখা বেগমকে বিবাদী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে এবং অভিযোগ দেওয়ার পর থেকে আসামী পক্ষে থেকে বিভিন্ন ধরণের ধর্ষণের হুমকি ধামকি ও প্রাণনাশের ভয়ে অসহায় আনোয়ারার পরিবার আতংকিত অবস্থায় দিনাতিপাত করছে। এব্যাপারে আনোয়ারার পরিবার ও এলাকাবাসী বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বীরগঞ্জ থানা প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।