সাংবাদিকের উপর অতর্কিত হামলা

0
0

 

মোঃ নাজমুল হোসেন – দিনাজপুরের বীরগঞ্জে গত মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ ইং তারিখের দৈনিক নাগরিক ভাবনা পত্রিকার ও সবুজ বাংলা নিউজের ,দিগন্ত বাংলা টিভির স্টাফ রিপোর্টার দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি কে জমি জবর দখল কারী মোমিন অতর্কিত হামলা করে। মোছাঃ রিনা বেগম, স্বামী-মোঃ আব্দুল জব্বার মাকড়াই, বীরগঞ্জ দিনাজপুর। রিনা থানায় আসিয়া একটি অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সুত্রেঃ ১. মোঃ মোমিন, পিতা মৃত শামসুল আলম ২. মোঃ মাসুদ রানা, পিতা মোঃ বজলুর রহমান, ৩. মোঃ বেলাল হোসেন, পিতা মোঃ আলিফ ইসলাম, ৪. মোঃ নজরুল আলী, বীরগঞ্জ, দিনাজপুরগণ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করিতেছি যে, আমি আমার বাড়িতে তালাবদ্ধ করিয়া ঢাকায় চলিয়া গেলে ০২/০৬/২০২০ ইং তারিখ বেলা অনুমান সাড়ে ১১ ঘটিকার সময় বাড়িতে আসিয়া দেখি যে, আমার বাড়িতে ৪. নং বিবাদী আমার বাড়ি দখল করিয়া রহিয়াছে।

ঘটনা দেখে আমি মোছাঃ কোহিনুর বেগম সংরক্ষিত মহিলা আসন ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড বীরগঞ্জ পৌরঃ দিনাজপুরকে জানালে মোঃ কোহিনুর বেগম সাংবাদিক মোঃ নাজমুল হোসেন, পিতাঃ মোঃ শমসের আলী, মাকড়াই (আদর্শপাড়া), থানা বীরগঞ্জ, দিনাজপুর। তারা ২ জন আমার বাড়িতে যাইয়া ৪ নং বিবাদী আলোচনা করিতে থাকিলে বাঁশের লাঠি দিয়ে মারাত্মক অস্ত্রে শস্ত্রে সজ্জিত। আমার বসতবাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করিয়া আমি কেন বাড়িতে আসিয়াছি বলিয়া ১ নং বিবাদী অন্যান্য বিবাদীদের হুকুম দিয়া বলে যে, শালা-শালীদের আজ প্রাণে মারিয়া শেষ করিয়া দাও।

এই হুকুমে ১ নং বিবাদী তার হাতে থাকা লোহার দিয়া সাংবাদিক মোঃ নাজমুল হোসেনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে আমি আগাইয়া গেলে ১নং বিবাদী তার হাতে থাকা বাঁশের লাঠি দিয়ে আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে ৩নং বিবাদী আমার পরনের কাপড় ধরিয়া টানা হেচরা করিয়া বিবস্ত্র করার চেষ্টা করে। এবং শ্লীলতাহানী ঘটায়। ১নং বিবাদী আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার গলা চাপিয়া ধরিয়া শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে।

আমি নিজেকে রক্ষার্থে ডাকচিৎকার করলে সাক্ষী ১.মোছাঃ রেহেনা বেগম, স্বামী মোঃ মনির শেখ। ২. মোছাঃ শাপলা বেগম, স্বামী মোঃ আক্তারুল হোসেন, সোছাঃ মর্জিনা বেগম হালু, স্বামী মৃত, রহিদুল ইসলাম সকলের ঠিকানা, মাকড়াই, বীরগঞ্জ, দিনাজপুরগণ ছাড়াও। আরো অনেকেই আগাইয়া আসিলে বিবাদী গন আমার বাড়ি জোরপূর্বক দখল করিয়া নিবে।

পুনরায় আমি বাড়িতে গেলে, প্রাণে মারিয়া ফেলিবে মর্মে প্রকাশ্যে প্রাণনাশক সহ বিভিন্ন প্রকার ভয়-ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে। সাক্ষীগণের সহযোগিতায় সাংবাদিক জখমী নাজমুল হোসেন সহ আমি রিনা বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বীরগঞ্জ, দিনাজপুর চিকিৎসা গ্রহণ করি। চিকিৎসা শেষে অভিযোগ করে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়।

পরে বীরগঞ্জ থানা হতে আজ বুধবার ৩ জুন বেলা ১২ টার সময় তদন্ত করেন এসআই মোঃ আব্দুল আকবর আলি। পরবর্তীতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকায় বীরগঞ্জ থানায় ডাকছে উভয় পক্ষকে।

 

  • 59
    Shares